Bangladesh Icon
আইকন সংবাদ:

সুফী মুহাম্মদ মিজানুর রহমান

চেয়ারম্যান, পিএইচপি গ্রুপ ইউনিভার্সিটি অব ইনফরমেশন টেকনোলজি এন্ড সায়েন্সেস


সফল মানুষের সংজ্ঞা কী? সংজ্ঞার দিকে না গিয়ে যদি যাওয়া যায় উদাহরণের দিকে, তাহলে বলতে হবে সফল মানুষের উদাহরণ হবেন সুফি মিজানুর রহমান। বাংলাদেশের শীর্ষ শিল্প-মালিকদের একজন তিনি। যাঁকে সবাই সুফি মিজান বলেই চেনেন। মেধা, মননশীলতা, অধ্যবসা, উদারতা, সহনশীলতা, ধৈর্য্য, অটলতা, দানশীলতা, কর্মউদ্দীপনা, পরোপকারিতা, বিনয়, আনুগত্য, অনাড়ম্বরতা, সচেতনতা, দূরদর্শিতা ইত্যাদি গুণাবলীর সমাহার ঘটেছে তাঁর মধ্যে। তিনি কর্মবীর, ভাগ্যবান শিল্পপতি। সুফীবাদী, শরীয়ত-তরীকতে প্রশ্নাতীত অনুগত।

মেধার সঙ্গে আত্মপ্রত্যয় ও কর্মোদ্যোগ যোগ না হলে সাফল্য আসে না। এই তিনের সমন্বয়ে ইতোমধ্যে সময়ের উদ্যোক্তা ব্যক্তিত্ব আলহাজ্ব সুফী মুহাম্মদ মিজানুর রহমান গড়ে তুলেছেন বিশাল শিল্পসাম্রাজ্য ‘পিএইচপি গ্রুপ’। সমাজ উন্নয়ন ও জনকল্যাণে বিশেষ অবদান ও ভূমিকার জন্যও তিনি মানুষের অতি আপনজন হিসেবে গ্রহণযোগ্যতা অর্জন করেছেন। বাংলাদেশে বর্তমান সময়ে ব্যাপক আলোচিত শিল্প-বাণিজ্য গ্রুপ ‘পিএইচপি’র চেয়ারম্যান তিনি।

এদেশের সফল শিল্প-মালিক এবং নতুন উদ্যোক্ততাদের কাজে প্রেরণার গল্প হিসেবে চমত্কার উদাহরণ এই হাস্যোজ্জ্বল মানুষটি।

বেড়ে ওঠা : অতি সাধারণ পরিবারের সন্তান সুফি মিজানুর রহমানের বেড়ে ওঠা থেকে বর্তমানে শীর্ষ অবস্থায় পৌঁছানো পর্যন্ত কাজ ও বিশ্বাসের বিরাট সমন্বয় খুঁজে পাওয়া যায়। সুফি মিজানুর রহমান ১৯৪৩ সালের ১২ মার্চ বর্তমান নারায়ণগঞ্জ জেলায় রূপগঞ্জ উপজেলার কাঞ্চন গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। পিতা মরহুম সুফি মুহাম্মদ দায়েম উদ্দিন। মাতা রাহেতুন্নেছা। গ্রামের পাঠশালায় তাঁর প্রাথমিক শিক্ষাজীবন শুরু হয়। গ্রামেরই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ভারত চন্দ্র স্কুল থেকে ১৯৬১ সালে মাধ্যমিক শিক্ষা গ্রহণ শেষ করেন। ১৯৬৩ সালে তিনি নারায়ণগঞ্জের তোলারাম কলেজে উচ্চ মাধ্যমিক শ্রেণিতে ভর্তি হয়ে উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করেন। পরবর্তী সময়ে ওই কলেজে বি.কম ক্লাসে ভর্তি হয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে স্নাতক পাশ করেন।

উত্থানপর্ব : জীবনে আমদানি করা প্রথম জিনিসটি ছিল ব্রিজস্টোন টায়ার। সময়টা ছিল ১৯৭২, দেশ মাত্র স্বাধীন হয়েছে। এ ব্যবসায় তিনি বিনিয়োগ করেন চার হাজার ডলার। প্রতি ডলারের বিপরীতে তখন পাওয়া যেত ১১ টাকা। বর্তমান বাজারদর অনুসারে বিনিয়োগের পরিমাণ ছিল ৪৪ হাজার টাকা। প্রথমবারের মতো এই আমদানি থেকে তিনি মুনাফা করেন এক লক্ষ টাকা। শুরু হলো প্রতিযোগিতার বাজারে নাম লেখানো। তিনি পুরোদস্তুর ব্যবসায়ী হিসেবে কার্যক্রম চালাতে লাগলেন। একসময় দেখলেন হাতে কয়েক কোটি টাকা জমে গেছে। তার মানে এখন চাইলে বড় কোনো কাজে হাত দেয়া সম্ভব। বঙ্গোপসাগর উপকূলে সীতাকু-ে প্রতিষ্ঠা করলেন শিপইয়ার্ড। পুরনো জাহাজ কেটে আসবাবপত্র বিক্রি করা হতো সেই শিপইয়ার্ড থেকে। এখান থেকে অর্জিত আয় দিয়ে ১৯৮২ সালে প্রতিষ্ঠা করলেন রি-রোলিং মিল। তারপর ১৯৮৪ সালে, মংলা ইঞ্জিনিয়ার্স ওয়ার্কস নামে বিলেট তৈরির কারখানা প্রতিষ্ঠা করেন, ওটাই ছিল দেশের প্রথম বিলেট কারখানা। এভাবেই পুরোদস্তুর বিনিয়োগকারী হয়ে ওঠেন সুফি মিজান।

 

সুফি মিজানকে নিয়ে ব্যবসায়ীমহলে প্রচলিত একটি প্রবাদ আছে। তিনি যেখানে হাত দেন তা সোনা হয়ে যায়। একজীবনে বহু ব্যবসায় জড়িয়েছেন। যে কাজে হাত দিয়েছেন, সফল হয়েছেন। ১৯৮৬ সালে ঢাকায় ঢেউটিনের কারখানা প্রতিষ্ঠা করেন, পিএইচপি রানী মার্কা ঢেউটিন। এরপর সীতাকুণ্ডের কুমিরায় দেন সিআর কয়েল কারখানা। এভাবে একের পর এক বিভিন্ন ব্যবসায় জড়িয়ে পড়েন এবং সফল হন।

পিএইচপির যাত্রা : স্ত্রীকে ভীষণ ভালোবাসেন সুফি মিজানুর রহমান। আর তাই স্ত্রী তাহমিনা রহমানের ইচ্ছা পূরণ করতে গিয়ে পিএইচপি গ্রুপ প্রতিষ্ঠা করেন—এমন একটা প্রবাদ চালু রয়েছে। পিএইচপি দেশে ২৩টির বেশি খাতে বিনিয়োগ করছে। এগুলোর মধ্যে রয়েছে—কোল্ড, স্টিল, ফিশারিজ, স্টকস অ্যান্ড সিকিউরিটিজ, পাওয়ার জেনারেশন প্ল­ান্ট, কন্টিনিউয়াস গ্যালভানাইজিং মিলস, শিপিং অ্যাজেন্সি, ফ্লাট গ্লাস, লেটেক্স অ্যান্ড রাবার প্রোডাক্টশন, টার্মিনাল অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন, প্রপার্টিজ, রোটারি ক্লাব, পেট্রো রিফাইনারি, এগ্রো প্রোডাক্ট, ইউনিভার্সিটি অব ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড সায়েন্স, কোল্ডস্টোরেজ, শিপ ব্রেকিং অ্যান্ড রিসাইক্লিং, ওভারসিজ, হাসপাতাল, অ্যায়ারলাইন্স ও ইলেক্ট্রিক খাত। এই বিষয়ে তিনি বলেন, ‘মানুষের কাছে পিএইচপি এখন একটি আস্থার নাম। তবে একদিনে হয়নি এই গ্রুপ। ২২ বছরে এই গ্রুপ ডালপালা বিস্তার করে পরিণত হয়েছে এক মহীরুহে। অনেক প্রতিষ্ঠান হয়েছে এখান থেকে। এসব প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে জীবিকা নির্বাহ করছেন অনেক মানুষ।

বর্তমানে পিএইচপি গ্রুপের যে শিল্প প্রতিষ্ঠানগুলো দেশীয় শিল্প-বাণিজ্যেও অঙ্গনে ব্যাপক আলোড়ন তুলেছে তা হচ্ছে সিআর কয়েল এবং সিআই শিট। এসব কারখানার উৎপাদিত পণ্য প্রায় হাজার কোটি টাকার বৈদেশিক মুদ্রা সাশ্রয় করছে। ১৯৯৯ সালে এসব কারখানা স্থাপনের পূর্বে সামগ্রিকভাবে গুণগত মানে উন্নত এসব পণ্য বিদেশ থেকে আমদানি করতে হতো। পিএইচপি কর্তৃক এ সকল মিল স্থাপনের পরপরই দেশের বেশ কয়েকটি বড় শিল্পগোষ্ঠী পিএইচপি’র অনুকরণে স্টীল মিল ও সিআই শিট মিল স্থাপন করে দেশের আত্মনির্ভরতার সহায়ক হয়েছে এবং কয়েক হাজার কোটি টাকার বৈদেশিক মুদ্রা সাশ্রয় করছে। বস্তুতপক্ষে ফ্ল্যাট স্টিল উৎপাদনের ক্ষেত্রে সুফী মিজানুর রহমানের পিএইচপি পথ প্রদর্শক এবং মার্কেট লিডার। বর্তমানে সিআরকয়েল এবং সিআই শিট রপ্তানি করে দেশ বৈদেশিক মুদ্রায় শত শত কোটি টাকা আয় করছে।

ফ্ল্যাট স্টিল ছাড়াও যে বিশেষ উল্লেখযোগ্য শিল্প প্রতিষ্ঠান স্থাপন করা হয়েছে তা হলো- পিএইচপি ফ্লোট গ্লাস ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড। কারখানাটির বাৎসরিক উৎপাদন ক্ষমতা ৫৪ হাজার মেট্রিক টন। বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশে এখন পিএইচপি’র ফ্লোট গ্লাস রপ্তানি হচ্ছে।

পিএইচপি প্রতিষ্ঠিত বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ইউআইটিএস বর্তমানে বাংলাদেশের শিক্ষাঙ্গনে এক বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে সক্ষম হয়েছে। এ দেশের সাধারণ পরিবারের সন্তানদের আলোকিত দক্ষ মানবসম্পদে রূপান্তরের লক্ষ্যে এ বিশ্ববিদ্যালয় স্বল্প ব্যয়ে অত্যন্ত উন্নত মানের শিক্ষা দান করছে। ২০০৯ সালের ২৯ জুলাই ঢাকায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিত ইউআইটিএসের প্রথম সমাবর্তন অনুষ্ঠানে ভারতের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রফেসর এপিজে আবদুল কালাম সমাবর্তন বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। দেশে শিক্ষাবিস্তারে পিএইচপির অবদান প্রশংসার দাবি রাখে।

পিএইচপি প্রতিটি ক্ষেত্রে তার ফগ্রযাত্রা অব্যাহত রেখেছে। সততা, আদর্শ এবং ন্যায়-নীতিকে ধারণ করে বিশ্বায়নের এই জটিল সময়েও যে সাফল্য অর্জন করা সম্ভব তার প্রমাণ পিএইচপি গ্রুপের চেয়ারম্যান সুফী মুহাম্মদ মিজানুর রহমান। যিনি এই বিশাল শিল্প গ্রুপের কর্ণধার হিসেবে নিজের ধ্যান-ধারণা, চিন্তা এবং আদর্শে এ গ্রুপটিকে সাজিয়েছেন। আলহাজ্ব সুফী মুহাম্মদ মিজানুর রহমান নিয়মিত ব্যবসায়িক কর্মকা- দেখাশোনার পাশাপাশি বিভিন্ন মকজিদ-মাদ্রাসিা, শিল্প প্রতিষ্ঠান, সংগঠন, দুঃখী মানুষ ও সমাজ উন্নয়নে পৃষ্ঠপোষকতার মাধ্যমে দানবীর হিসেবেও সর্বমহলে প্রশংসিত।

অত্যন্ত সাধাসিধে ও নিরহংকার মানুষ তিনি। অসাধারণ ব্যক্তিত্বের অধিকারী এ কৃতি পুরুষ নিজের ব্যবসা-বাণিজ্যের পাশাপাশি সামাজিক কর্মকা- নিপুণভাবে সামলে  নিতে পারেন। তাঁর জীবনের যা কিছু অর্জন তা ভোগ বিলাসের জন্যে নয়, সব কিছু আল্লাহর দান এবং তিনি এ দান দিয়েই মানুষের সেবা করে চলেছেন।

সুফী মুহাম্মদ মিজানুর রহমানের শ্রম, মেধা, দক্ষতা, বিচক্ষণতা, দূরদর্শিতা, সততা ও নিষ্ঠার সমৃদ্ধ ফসল পিএইচপি শিপ ব্রেকিং অ্যান্ড রিসাইক্লিং ইন্ডস্ট্রিজ লিমিটেড, পিএইচপি কোল্ড রোলিং মিলস লিমিটেড, পিএইচপি স্টীলস লিমিটেড, পিএইচপি কন্টিনিউয়াস গ্যালভানাইজিং মিলস লিমিটেড, পিএইচপি নন-কন্টিনিউয়াস গালভানাইজিং মিলস লিমিটেড, পিএইচপি ফ্লোট গ্লাস ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড, পিএইচপি শিপিং লাইন্স লিমিটেড, পিএইচপি পাওয়ার জেনারেশন প্ল্যান্ট লিমিটেড, পিএইচপি পাওয়ার জেনারেশন প্ল্যান্ট লিমিটেড, পিএইচপি ফিশারিজ লিমিটেড, পিএইচপি পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড, বে-টার্মিনাল অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড, পিএইচপি এগ্রো প্রোডাক্টস লিমিটেড, পিএইচপি এ্যালুমিনিয়াম প্রোডাক্টস লিমিটেড, পিএইচপি পেট্রো রিফাইনারি লিমিটিড, পিএইচপি ওভারসিজ লিমিটেড, পিএইচপি স্টকস অ্যান্ড সিকিউরিটিজ লিমিটেড, এম আর এফ রোটর, আলহাজ্ব সুফী দায়েব উদ্দিন হসপিটাল, রূপগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ এবং মাউন্ট হসপিটাল, চট্টগ্রাম। এছাড়াও চট্টগ্রাম-রাজশাহী-ঢাকার গুলশানে ইউনিভার্সিটি অব ইনফরমেশণ টেকনোলজি অ্যান্ড সায়েন্সের (ইউআইটিএস) নামে বাংলাদেশের প্রথম আইটি বেজড বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করে পিএইচপি গ্রুপ। দেশীয় শিল্প-বাণিজ্যের নতুন ধারার প্রবর্তক, বিশাল ব্যক্তিত্বের অধিকারী আলহাজ্ব সুফী মুহাম্মদ মিজানুর রহমান সর্বজন শ্রদ্ধেয়।

ভবষ্যিত স্বপ্ন : ‘আমি বেঁচে থাকি আর না থাকি ২০২০ সালে পিএইচপি গ্রুপ হবে বাংলার টাটা। ভারতীয় টাটা হলো বিশ্বের অন্যতম শীর্ষস্থানীয় লৌহজাত সামগ্রীর শিল্প-প্রতিষ্ঠান। পিএইচপি বাংলাদেশে তেমনি খনির আকরিক লোহা থেকে একদম শেষ পণ্য বানানোর কারখানা গড়বে।’

ভব্যিষত্ স্বপ্নের কথা উঠতেই পিএইচপি গ্রুপের এই কর্ণধার বলেন, ‘যতদিন বেঁচে থাকব, মানুষের জন্য, দেশের জন্য সেবা করে যেতে চাই। যদি কখনো শুনি সুফি মিজানের জন্য আমার ভাগ্য বদল হয়েছে সেদিন আমার অনেক আনন্দ হবে। বিশ্বাসটাকে পুঁজি করে সামনে এগিয়ে যাওয়াই আমার কাজ।’

  • Rocking the night away
  • Rocking the night away
  • Rocking the night away
  • Rocking the night away
  • Rocking the night away
  • Rocking the night away
  • Rocking the night away
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান BANGLADESH ICON আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ আতিউর রহমান বেগম রোকেয়া মোস্তাফা জব্বার ভাষা শহিদ সজীব ওয়াজেদ জয় তাজউদ্দীন আহমদ শেরে বাংলা ফজলুল হক মাওলানা ভাসানী  প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদার বেগম সুফিয়া কামাল শেখ হাসিনা রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর হোসেন শহিদ সোহরাওয়ার্দি কাজী নজরুল ইসলাম মাস্টারদা সূৰ্য সেন ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ মণি সিংহ স্যার ফজলে হাসান আবেদ  সালমান এফ রহমান সুফী মুহাম্মদ মিজানুর রহমান মোরশেদ আলম এমপি সৈয়দ মঞ্জুর এলাহী আহমেদ আকবর সোবহান জয়নুল হক সিকদার দীন মোহাম্মদ আজম জে. চৌধুরী প্রফেসর মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিন সাইফুল আলম মাসুদ আলহাজ্ব এম এম এনামুল হক খলিলুর রহমান এ কে এম রহমত উল্লাহ্ ইফতেখার আহমেদ টিপু শেখ কবির হোসেন এ কে আজাদ ডাঃ মোমেনুল হক আলহাজ্ব মোঃ হারুন-উর-রশীদ কাজী সিরাজুল ইসলাম নাছির ইউ. মাহমুদ ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল আজিজ শেখ ফজলে ফাহিম প্রফেসর ড. কবির হোসেন তালুকদার মোঃ হাবিব উল্লাহ ডন রূপালী চৌধুরী হেলেন আখতার নাসরীন মনোয়ারা হাকিম আলী নাসরিন সরওয়ার মেঘলা প্রীতি চক্রবর্তী মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির ক্যাপ্টেন তাসবীরুল আহমেদ চৌধুরী এহসানুল হাবিব আলহাজ্জ্ব জাহাঙ্গীর আলম সরকার আলহাজ্ব খন্দকার রুহুল আমিন তানভীর আহমেদ ড. বেলাল উদ্দিন আহমদ মোঃ শফিকুর রহমান সেলিম রহমান মাফিজ আহমেদ ভূঁইয়া  মোঃ ওবায়েদ উল্লাহ আল মাসুদ  শহিদ রেজা আব্দুর রউফ জেপি এডভোকেট ইকবাল আহমদ চৌধুরী এ কে এম সরওয়ারদি চৌধুরী ড. এম. মোশাররফ হোসেন মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মামুন লায়ন মোঃ মোজাম্মেল হক ভূঁইয়া মোঃ মিজানুর রহমান সায়েম সোবহান আনভীর মামুন-উর-রশিদ বি এম ইউসুফ আলী মোঃ জামিরুল ইসলাম ডক্টর হেমায়েত হোসেন মোঃ শাহ আলম সরকার ফারজানা চৌধুরী এম. সামসুজ্জামান মেজর পারভেজ হাসান (অব.) এম এ মতিন সৈয়দ মোহাম্মদ কামাল মাসুদ পারভেজ খান ইমরান ড. এম এ ইউসুফ খান কাজী সাজেদুর রহমান ড. হাকীম মোঃ ইউছুফ হারুন ভূঁইয়া আলহাজ্ব মীর শাহাবুদ্দীন মোঃ মুনতাকিম আশরাফ (টিটু) মোঃ আবদুর রউফ কাজী আকরাম উদ্দিন আহমেদ আব্দুল মাতলুব আহমাদ মোঃ মজিবর রহমান মোহাম্মদ নূর আলী সাখাওয়াত আবু খায়ের মোহাম্মদ আফতাব-উল ইসলাম মোঃ সিরাজুল ইসলাম মোল্লা এমপি প্রফেসর ড. আবু ইউসুফ মোঃ আব্দুল্লাহ মোঃ জসিম উদ্দিন বেনজীর আহমেদ মিসেস তাহেরা আক্তার পারভীন হক সিকদার নাসির এ চৌধুরী হাফিজুর রহমান খান ড. মোহাম্মদ ফারুক কাইউম রেজা চৌধুরী মোঃ সবুর খান মাহবুবুল আলম মোঃ হেলাল মিয়া সেলিমা আহমাদ নজরুল ইসলাম ড. এ এস এম বদরুদ্দোজা ড. হায়দার আলী মিয়া ইঞ্জিনিয়ার গুলজার রহমান এম জামালউদ্দিন মোঃ আব্দুল হামিদ মিয়া মোঃ হাবিবুর রহমান মোঃ মুহিব্বুর রহমান চৌধুরী মোহাম্মদ নুরুল আমিন জিয়াউর রহমান ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী শ্যামল দত্ত জ ই মামুন আনিসুল হক সামিয়া রহমান মুন্নি সাহা আব্বাসউদ্দীন আহমদ নীলুফার ইয়াসমীন ফিরোজা বেগম শাহ আব্দুল করিম ফরিদা পারভীন সরদার ফজলুল করিম আনিসুজ্জামান আখতারুজ্জামান ইলিয়াস হুমায়ূন আহমেদ সেলিম আল দীন জহির রায়হান বুলবুল আহমেদ রওশন জামিল সৈয়দ হাসান ইমাম হেলেনা জাহাঙ্গীর অঞ্জন রায় অধ্যক্ষ আব্দুল আহাদ চৌধুরী অধ্যাপক আবু আহমেদ অধ্যাপক  আবু সাইয়িদ অধ্যাপক আমেনা মহসীন অধ্যাপক এমাজউদ্দীন আহমদ অধ্যাপক জয়নাল আবদিন এমপি অধ্যাপক ড. আরিফুর রহমান অধ্যাপক ড. আব্দুল মতিন পাটোয়ারী অধ্যাপক ড. ইজাজ হোসেন অধ্যাপক ড. এ কে আজাদ চৌধুরী অধ্যাপক ড. এ কে আব্দুল মোমেন অধ্যাপক ড. এম এ মান্নান অধ্যাপক ড. এম এ হাকিম অধ্যাপক ড. এম শমসের আলী অধ্যাপক ড. দিলারা চৌধুরী অধ্যাপক ড. শাহেদা ওবায়েদ অধ্যাপক ড. সদরুল আমিন অধ্যাপক ড. হাফিজ জি. এ. সিদ্দিকী অধ্যাপক ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন অধ্যাপক তৌহিদুল আলম অধ্যাপক ডা. বরেন চক্রবর্তী অধ্যাপক ডা. মতিউর রহমান অধ্যাপক ডা. মোঃ শারফুদ্দিন আহমেদ অধ্যাপক ডা. মোঃ হাবিবে মিল্লাত এমপি অধ্যাপক মেহতাব খানম অধ্যাপিকা অপু উকিল এমপি অধ্যাপক ড. হোসনে আরা বেগম আইয়ুব বাচ্চু আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসাইন আনিস এ. খান আনোয়ার উল আলম চৌধুরী পারভেজ আনোয়ার হোসেন মঞ্জু আবদুল বাসেত মজুমদার আবু সাঈদ খান আবুল কাশেম মোঃ শিরিন আবুল কাসেম হায়দার আবুল মাল আব্দুল মুহিত আব্দুল আউয়াল মিন্টু আব্দুল মতিন খসরু এমপি আবদুল মুকতাদির আব্দুল মুয়ীদ চৌধুরী আব্দুস সালাম মুর্শেদী আমির আমির হোসেন আমু এমপি আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী আয়শা খানম আ স ম আবদুর রব আ স ম ফিরোজ আসাদুজ্জামান খান কামাল আসিফ ইব্রাহীম আলী রেজা ইফতেখার আ হ ম মুস্তফা কামাল এমপি ইউসুফ আব্দুল্লাহ হারুন ইনায়েতুর রহিম ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক এমপি ইঞ্জিনিয়ার নুরুল আকতার ইমদাদুল হক মিলন উপধ্যক্ষ মোঃ আব্দুস শহীদ এমপি এ এইচ এম নোমান এ এইছ আসলাম সানি এ কে ফাইয়াজুল হক রাজু এডভোকেট তানবীর সিদ্দিকী এডভোকেট ফজিলাতুন নেসা বাপ্পি এমপি এডভোকেট মোঃ ফজলে রাব্বী এমপি এনাম আলী এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার এমপি এম এ সবুর এম নাছের রহমান এয়ার কমডোর ইসফাক এলাহী চৌধুরী (অব.) এস এম ফজলুল হক ওয়াহিদা বানু কবরী সারোয়ার কাজী ফিরোজ রশীদ কেকা ফেরদৌসী কে. মাহমুদ সাত্তার খন্দকার রুহুল আমিন খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদ খালেদ মুহিউদ্দীন খুশি কবির জুনাইদ আহমেদ পলক জোবেরা লিনু টিপু মুন্সী ড. আবুল বারকাত ড. কাজী কামাল আহমদ ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ ড. তৌফিক এম. সেরাজ ড. বদিউল আলম মজুমদার ড. মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিন ড. সাজ্জাদ জহির ড. সা’দত হুসাইন মেজর জেনারেল সৈয়দ মুহাম্মদ ইব্রাহীম (অব.) বীর প্রতীক মেজর জেনারেল হেলাল মোর্শেদ খান (অব.) বীর বিক্রম মেহের আফরোজ চুমকি মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ মিথিলা ফারজানা মীর নাসির হোসেন মীর মাসরুর জামান মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দীন মীর শওকাত আলী বাদশা মুনিরা খান মুহাম্মদ আজিজ খান মোহাম্মদ নূর আলী মোঃ গোলাম মাওলা রনি এমপি মোঃ জসিম উদ্দিন মসিউর রহমান রাঙ্গা রাশেদ খান মেনন রাশেদা কে চৌধুরী লে. কর্ণেল মোঃ ফারুক খান (অব.) শহীদ উদ্দীন চৌধুরী এ্যানি শাইখ সিরাজ শাওন মাহমুদ শাজাহান খান এমপি শামসুজ্জামান খান শাহীন আনাম শারমীন মুরশিদ শুভ্র দেব শিবলী মোহাম্মদ শিরীন আখতার সরদার সাখাওয়াত হোসেন বকুল স্থপতি মোবাশ্বের হোসেন সাঈদ খোকন সাকিব আল হাসান সাগুফতা ইয়াসমিন এমেলী সাব্বির হাসান নাসির সালমা খান সালাউদ্দিন কাশেম খান সিগমা হুদা সিলভীয়া পারভীন লিনি সুকুমার রঞ্জন ঘোষ সুরাইয়া জান্নাত সুলতানা কামাল সৈয়দ আখতার মাহমুদ সৈয়দ আবুল মকসুদ সৈয়দ মার্গুব মোর্শেদ সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল সৈয়দা রিজওয়ানা হাসান হাসানুল হক ইনু ড. সিনহা এম এ সাঈদ অধ্যাপক ড. সৈয়দ আনোয়ার হোসেন ড. হামিদুল হক ড. হোসেন জিল্লুর রহমান ড. হোসেন মনসুর ড. রেজোয়ান সিদ্দিকী ডা. অরূপরতন চৌধুরী ডা. এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী ডা. জাফরুল্লাহ্ চৌধুরী ডা. জোনাইদ শফিক ডা. মোঃ আব্দুল মতিন ডা. লুৎফর রহমান ডা. সরদার এ নাঈম ডা. সাঈদ আহমেদ সিদ্দিকী ডা. সামন্ত লাল সেন তোফায়েল আহমেদ তালেয়া রেহমান দিলরুবা হায়দার নজরুল ইসলাম খান নজরুল ইসলাম বাবু নবনীতা চৌধুরী নাঈমুর ইসলাম খান নমিতা ঘোষ নাঈমুর রহমান দূর্জয় নাসরীন আওয়াল মিন্টু নুরুল ইসলাম সুজন এমপি নুরুল কবীর নিলোফার চৌধুরী মনি এমপি প্রকোশলী তানভিরুল হক প্রবাল প্রফেসর মেরিনা জাহান ফকির আলমগীর ফরিদ আহমেদ বেগম মতিয়া চৌধুরী বিগ্রেডিয়ার জেনারেল এম সাখাওয়াত হোসেন (অব.) ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ ব্যারিস্টার আমীর-উল ইসলাম ব্যারিস্টার তানিয়া আমীর ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা ব্যারিস্টার সারা হোসেন ভেলরি এ টেইলর মতিউর রহমান চৌধুরী মনজিল মোরসেদ মমতাজ বেগম এমপি মামুন রশীদ মাহফুজ আনাম মাহফুজ উল্লাহ