Bangladesh Icon
আইকন সংবাদ:

ড. হায়দার আলী মিয়া

ম্যানেজিং ডিরেক্টর এন্ড সিইও এক্সিম ব্যাংক


বর্তমান সময়ে যে সকল ব্যাংকার ব্যক্তিত্ব নিজেদের কর্মসাফল্য দ্বারা শিল্প-বাণিজ্য অঙ্গনে বেশ আলোচিত, তাদেরই একজন উদ্যমী ব্যাংকার ড. মোহাম্মদ হায়দার আলী মিয়া। তিনি বেসরকারি খাতের তৃতীয় প্রজন্মের ব্যাংক এক্সপোর্ট ইমপোর্ট ব্যাংক অব বাংলাদেশ লিমিটেড  (এক্সিম ব্যাংক)-এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর অ্যান্ড সিইও। একজন ক্যারিয়ারিস্ট ব্যাংকার হিসেবে তিনি এক্সিম ব্যাংককে ব্যবসা-সফল ব্যাংক হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে চলেছেন। ড. মোহাম্মদ হায়দার আলী মিয়া একজন গবেষণাধর্ম মানসিকতাসম্পন্ন মানুষ। তিনি দীর্ঘদিন ধরে অর্থনীতি ও ব্যাংকিং সেক্টর নিয়ে গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছেন ।

পেশাজীবনে অত্যন্ত সুশৃঙ্খল, আদর্শবাদী ও দূরদশী ব্যাংকার তিনি। সম্প্রতি তিনি ব্যাংকিং খাতের মুনাফা হার কমানোর বিষয়ে গবেষণা করছেন । একই সঙ্গে খেলাপি ঋণ আদায়ে কি  ধরনের উদ্যোগ নিলে তা কার্যকর হতে পারে এ নিয়েও প্রচুর লেখালেখি করছেন। জেনারেল ব্যাংকিং, ইসলামী ব্যাংকিং, ইসলামী অর্থনীতি ইত্যাদি বিষয়ে বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় নিয়মিত তাঁর প্রবন্ধ প্রকাশিত হয়। ইতোমধ্যে তার এ হ্যান্ড বুক অব ইসলামিক ব্যাংকিং এন্ড ফরেন এক্সচেঞ্জ অপারেশন’ (১৯৯৫) এবং “এ ওয়ে টু ইসলামিক ব্যাংকিং কাস্টমস এন্ড প্র্যাক্টিস (২০১৪) নামে দুটি মূল্যবান বই প্রকাশিত হয়েছে। ২০১৬ সালে প্রকাশিত হয়েছে তাঁর ‘মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি” নামক বইটি । এছাড়া ‘ইসলামিক ব্যাংকিং ল’ এন্ড প্র্যাক্টিস’ নামে অন্য একটি বইয়ের প্রকাশ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে ।

অত্যন্ত মেধাবী ও ধী-শক্তিসম্পন্ন হায়দার আলী মিয়া ছাত্র হিসেবেও ছিলেন মেধাসম্পন্ন। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কৃতিত্বের সঙ্গে বিএসসি (সম্মান) এবং এমএসসি ডিগ্রি লাভ করেন । তিনি লন্ডন ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি অ্যান্ড রিসার্চ, ইউকে থেকে মার্কেটিং এবং ম্যানেজমেন্ট বিষয় দুটিতে এমবিএ ডিগ্রি অর্জন করেন। ২০০৮ সালে তিনি আমেরিকান ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি, ক্যালিফোর্নিয়া থেকে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন। ড. হায়দার আলী মিয়া পেশা হিসেবে বেছে নেন ব্যাংকিং। ১৯৮৪ সালে তিনি প্রবেশনারি অফিসার হিসেবে ব্যাংকিং পেশায় আসেন। ১৯৮৪ থেকে ২০০০ সাল পর্যন্ত বিভিন্ন পদমর্যাদায় বিভিন্ন শাখা ও বিভাগে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন। ২০০০ সালে তিনি এক্সিম ব্যাংকে ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে যোগদান করেন এবং গুলশান শাখার শাখা ব্যবস্থাপকের দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়া তিনি সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে গুলশান শাখা এবং মতিঝিল শাখার ব্যবস্থাপক হিসেবে মাঠ পর্যায়ে দায়িত্ব পালন করেন। ২০০৪ সালে তিনি এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে এক্সিম ব্যাংকের প্রধান কাৰ্যালয়ে আরএমজি এন্ড ইনভেস্টমেন্ট ডিভিশনের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২০০৭ সালে সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে পদোন্নতি লাভের পর তিনি এ ডিভিশনের দায়িত্বের পাশাপাশি মার্কেটিং বিভাগের দায়িত্বও সাফল্যের সঙ্গে পালন করেন। প্রধান কাৰ্যালয়ের আরএমজি এন্ড ইনভেস্টমেন্ট বিভাগটিকে তিনি গতিশীল এবং কার্যকর করার ক্ষেত্রে অত্যন্ত সাফল্যের পরিচয় দেন ।

এক্সিম ব্যাংক এ দেশের আরএমজি ইনভেস্টমেন্টে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে রপ্তানি খাতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে। জনাব হায়দার আলী  ২০০৮ সালের জুনে বাণিজ্য-সফল এক্সিম ব্যাংকের ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর পদে পদোন্নতি পান। এই পদোন্নতির মাধ্যমে তাঁর দায়িত্ব এবং কর্মপরিসরের আরো বৃদ্ধি ঘটে। পরবতীতে তিনি এডিশনাল ম্যানেজিং ডিরেক্টর হিসেবে পদোন্নতি লাভ এবং এ পদে বেশ কিছু সময় দায়িত্ব পালন করেন। এ সময়টিতে তিনি এ ব্যাংকের কর্পোরেট ব্যাংকিং, মানবসম্পদ, তথ্যপ্রযুক্তি, আইন ও আদায়, মার্চেন্ট ব্যাংকিং, ক্রেডিট কার্ড, এন্টি মানি লন্ডারিং এবং জনসংযোগ বিভাগসহ বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিভাগের সুপারভাইজর হিসেবে অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেন। তাঁর আন্তরিক উদ্যোগ, ব্যাংকের প্রতি উন্নয়নমুখী মনোভাব এবং সর্বোপরি তাঁর দক্ষতা এবং অভিজ্ঞতার মূল্যায়ন করেই কর্তৃপক্ষ তাঁকে এ ব্যাংকের সর্বোচ্চ নির্বাহী হিসেবে ম্যানেজিং ডিরেক্টর এন্ড সিইও পদে পদোন্নতি প্ৰদান করেন ।

এই দায়িত্বশীল আধুনিক ব্যাংকার ব্যক্তিত্ব বেশ কিছু প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট । তিনি Institute of Bankers Bangladesh (IBB)-এর একজন আজীবন সদস্য, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্টার্ড গ্রাজুয়েট, ইসলামিক ইকোনমিক এন্ড রিসার্চ বুঢ়রো, অল কমিউনিটি ক্লাব, গুলশান-২, উত্তরা ক্লাব, উত্তরা, এশিয়া ক্লাব এবং রাজধানী সুটিং ক্লাব, ঢাকার আজীবন সদস্য। একই সঙ্গে তিনি যুক্তরাজ্যের Institute of Islamic Banking and Insurance, London-এর ফেলো মেম্বার এবং মানিকগঞ্জ জেলা সমিতি এবং ইব্রাহিমপুর স্কুল এলামনাই এসোসিয়েশন (ইশা)-এর আজীবন সদস্য।

জনাব হায়দার আলী নিজ এলাকা এবং পেশাজীবন সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানে একজন খেলোয়াড় হিসেবেও আলোচিত। তিনি ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধে ২নং সেক্টরের সঙ্গে সম্পৃক্ত একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। দক্ষ ও প্রাজ্ঞ ব্যাংকার ব্যক্তিত্ব ড. মোহাম্মদ হায়দার আলী মিয়া লন্ডনভিত্তিক আন্তর্জাতিক সংগঠন গ্লোবাল ইকোনমিস্ট ফোরাম, বাংলাদেশ চ্যাপ্টারের নির্বাচিত সভাপতি । অধ্যবসায়, কর্মস্পৃহা ও সততার কারণে পেশাগত জীবনে ড. হায়দার আলী মিয়া দেশে ও আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে ব্যাপক স্বীকৃতি ও সম্মাননা অর্জন করেছেন। পেশাগত কৰ্ম নৈপুণ্যের স্বীকৃতি হিসাবে তিনি ২০১৫ সালে যুক্তরাষ্ট্রের ওয়ার্ল্ড কনফেডারেশন অব বিজনেস কর্তৃক “ওয়ার্ল্ড লিডার বিজনেস পারসন’ হিসাবে ভূষিত হন এবং নেতৃত্ব দানের বিশেষ যোগ্যতা মূল্যায়নে যুক্তরাজ্যের এসিকিউ গ্লোবাল কর্তৃক 'গেম চেঞ্জার অব দি ইয়ার ২০১৫’ খেতাব অর্জন করেন। বাংলাদেশ বিজনেস জার্নালিস্ট সোসাইটি ২০১৫ সালে তাকে সফলতম ব্যাংকার হিসাবে ঘোষণা করে। ওয়ার্ল্ড হিস্ট্রি রিসার্চ একাডেমি তাকে “স্বাধীনতা স্বর্ণপদক ২০১৫’ প্ৰদান করে ।

ব্যাংকিংয়ে বিশেষ অবদানের জন্য ২০১৫ সালে তিনি বিশ্ববিদ্যালয় পরিক্রম কর্তৃক স্বর্ণপদকে ভূষিত হন। ২০১৪ সালে তিনি সিঙ্গাপুরে সিএমও এশিয়া কর্তৃক আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এশিয়ার ‘মোস্ট ট্যালেন্টেড ইসলামিক ব্যাংকিং প্রফেশনাল (সিইও)' খেতাবে ভূষিত হন। ব্যাংকিংয়ে অনবদ্য কৃতিত্বের জন্য সাহিত্যের কাগজ চন্দ্রদ্বীপ কর্তৃক “নওয়াব ফয়জুন্নেসা গোল্ড মেডেল ২০১৩' এবং বিডি ফাউন্ডেশন কর্তৃক নবাব সিরাজুদ্দৌলা গোল্ড মেডেল” অর্জন করেন। ২০১১ সালে তিনি বিশ্ববিদ্যালয় পরিক্রমা স্বর্ণপদক এবং বাংলাদেশ মেধাবিকাশ সোসাইটির মাদার তেরেসা স্বর্ণপদক লাভ করেন। এছাড়া অনন্যা সোশ্যাল ফাউন্ডেশন, অল কমু্নিটি ক্লাব লিঃ, নবাব সিরাজুদ্দৌলা রিসার্চ কাউন্সিল, স্বাধীনতা সংসদ, অনন্যা সাংস্কৃতিক গোষ্ঠী, ওমর সিরাজ জিকিউ ফাউন্ডেশন, হাতিরঝিল ক্লাব লিঃ, মানিকগঞ্জের ইব্রাহিমপুর স্কুল এলামনাই এসোসিয়েশন, মানিকগঞ্জ সমিতিসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে তিনি ব্যাংকিং খাতে বিশেষ অবদানের জন্য বিভিন্ন সময়ে স্বর্ণ পদক, খেতাব, গুণীজন সংবর্ধনা ও সম্মাননা অর্জন করেছেন।

এছাড়া এক্সপোর্ট ইমপোর্ট ব্যাংক অব বাংলাদেশ লিমিটেড-এর পরিচালনা পর্ষদ কর্তৃক পেশাগত উৎকর্ষের স্বীকৃতিস্বরূপ ২০০১, ২০০২ ও ২০০৪ সালে স্বর্ণপদকে ভূষিত ।

ড. মোহাম্মদ হায়দার আলী মিয়া মনে করেন, দারিদ্র্যমুক্ত ডিজিটাল বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে ব্যাংকগুলোর ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। জনগণের কর্মসংস্থান, আয় ও উৎপাদনমুখী উদ্যোগগুলো জোরালো করার লক্ষ্যে ফাইন্যান্সিয়াল ইনকুশন (আর্থিক খাত সেবাভুক্তি) এবং গ্ৰীন ব্যাংকিং (পরিবেশবান্ধব অর্থায়ন)-এর ভূমিকা সম্পর্কে তিনি অনেক লেখালেখি করেন। তিনি মনে করেন, সুদ ও দারিদ্র্যমুক্ত ডিজিটাল বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে ব্যাংকগুলো গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে। তিনি বাংলাদেশে ব্যাংকের কার্যক্রম সম্পর্কে প্রশংসা করে বলেন, কেন্দ্রীয় ব্যাংক দেশকে একটি অন্তর্ভুক্তিমূলক ও পরিবেশবান্ধব টেকসই অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জনের দিকে গতিশীল করতে সমাজের পিছিয়ে পড়া দরিদ্র জনগোষ্ঠীকে আর্থিক সেবার আওতায় নিয়ে আসার কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। তিনি বলেন, এক্সিম ব্যাংকও এই কর্মসূচি বাস্তবায়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে চলেছে।

  • Rocking the night away
  • Rocking the night away
  • Rocking the night away
  • Rocking the night away
  • Rocking the night away
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান BANGLADESH ICON আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ আতিউর রহমান বেগম রোকেয়া মোস্তাফা জব্বার ভাষা শহিদ সজীব ওয়াজেদ জয় তাজউদ্দীন আহমদ শেরে বাংলা ফজলুল হক মাওলানা ভাসানী  প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদার বেগম সুফিয়া কামাল শেখ হাসিনা রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর হোসেন শহিদ সোহরাওয়ার্দি কাজী নজরুল ইসলাম মাস্টারদা সূৰ্য সেন ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ মণি সিংহ স্যার ফজলে হাসান আবেদ  সালমান এফ রহমান সুফী মুহাম্মদ মিজানুর রহমান মোরশেদ আলম এমপি সৈয়দ মঞ্জুর এলাহী আহমেদ আকবর সোবহান জয়নুল হক সিকদার দীন মোহাম্মদ আজম জে. চৌধুরী প্রফেসর মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিন সাইফুল আলম মাসুদ আলহাজ্ব এম এম এনামুল হক খলিলুর রহমান এ কে এম রহমত উল্লাহ্ ইফতেখার আহমেদ টিপু শেখ কবির হোসেন এ কে আজাদ ডাঃ মোমেনুল হক আলহাজ্ব মোঃ হারুন-উর-রশীদ কাজী সিরাজুল ইসলাম নাছির ইউ. মাহমুদ ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল আজিজ শেখ ফজলে ফাহিম প্রফেসর ড. কবির হোসেন তালুকদার মোঃ হাবিব উল্লাহ ডন রূপালী চৌধুরী হেলেন আখতার নাসরীন মনোয়ারা হাকিম আলী নাসরিন সরওয়ার মেঘলা প্রীতি চক্রবর্তী মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির ক্যাপ্টেন তাসবীরুল আহমেদ চৌধুরী এহসানুল হাবিব আলহাজ্জ্ব জাহাঙ্গীর আলম সরকার আলহাজ্ব খন্দকার রুহুল আমিন তানভীর আহমেদ ড. বেলাল উদ্দিন আহমদ মোঃ শফিকুর রহমান সেলিম রহমান মাফিজ আহমেদ ভূঁইয়া  মোঃ ওবায়েদ উল্লাহ আল মাসুদ  শহিদ রেজা আব্দুর রউফ জেপি এডভোকেট ইকবাল আহমদ চৌধুরী এ কে এম সরওয়ারদি চৌধুরী ড. এম. মোশাররফ হোসেন মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মামুন লায়ন মোঃ মোজাম্মেল হক ভূঁইয়া মোঃ মিজানুর রহমান সায়েম সোবহান আনভীর মামুন-উর-রশিদ বি এম ইউসুফ আলী মোঃ জামিরুল ইসলাম ডক্টর হেমায়েত হোসেন মোঃ শাহ আলম সরকার ফারজানা চৌধুরী এম. সামসুজ্জামান মেজর পারভেজ হাসান (অব.) এম এ মতিন সৈয়দ মোহাম্মদ কামাল মাসুদ পারভেজ খান ইমরান ড. এম এ ইউসুফ খান কাজী সাজেদুর রহমান ড. হাকীম মোঃ ইউছুফ হারুন ভূঁইয়া আলহাজ্ব মীর শাহাবুদ্দীন মোঃ মুনতাকিম আশরাফ (টিটু) মোঃ আবদুর রউফ কাজী আকরাম উদ্দিন আহমেদ আব্দুল মাতলুব আহমাদ মোঃ মজিবর রহমান মোহাম্মদ নূর আলী সাখাওয়াত আবু খায়ের মোহাম্মদ আফতাব-উল ইসলাম মোঃ সিরাজুল ইসলাম মোল্লা এমপি প্রফেসর ড. আবু ইউসুফ মোঃ আব্দুল্লাহ মোঃ জসিম উদ্দিন বেনজীর আহমেদ মিসেস তাহেরা আক্তার পারভীন হক সিকদার নাসির এ চৌধুরী হাফিজুর রহমান খান ড. মোহাম্মদ ফারুক কাইউম রেজা চৌধুরী মোঃ সবুর খান মাহবুবুল আলম মোঃ হেলাল মিয়া সেলিমা আহমাদ নজরুল ইসলাম ড. এ এস এম বদরুদ্দোজা ড. হায়দার আলী মিয়া ইঞ্জিনিয়ার গুলজার রহমান এম জামালউদ্দিন মোঃ আব্দুল হামিদ মিয়া মোঃ হাবিবুর রহমান মোঃ মুহিব্বুর রহমান চৌধুরী মোহাম্মদ নুরুল আমিন জিয়াউর রহমান ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী শ্যামল দত্ত জ ই মামুন আনিসুল হক সামিয়া রহমান মুন্নি সাহা আব্বাসউদ্দীন আহমদ নীলুফার ইয়াসমীন ফিরোজা বেগম শাহ আব্দুল করিম ফরিদা পারভীন সরদার ফজলুল করিম আনিসুজ্জামান আখতারুজ্জামান ইলিয়াস হুমায়ূন আহমেদ সেলিম আল দীন জহির রায়হান বুলবুল আহমেদ রওশন জামিল সৈয়দ হাসান ইমাম হেলেনা জাহাঙ্গীর অঞ্জন রায় অধ্যক্ষ আব্দুল আহাদ চৌধুরী অধ্যাপক আবু আহমেদ অধ্যাপক  আবু সাইয়িদ অধ্যাপক আমেনা মহসীন অধ্যাপক এমাজউদ্দীন আহমদ অধ্যাপক জয়নাল আবদিন এমপি অধ্যাপক ড. আরিফুর রহমান অধ্যাপক ড. আব্দুল মতিন পাটোয়ারী অধ্যাপক ড. ইজাজ হোসেন অধ্যাপক ড. এ কে আজাদ চৌধুরী অধ্যাপক ড. এ কে আব্দুল মোমেন অধ্যাপক ড. এম এ মান্নান অধ্যাপক ড. এম এ হাকিম অধ্যাপক ড. এম শমসের আলী অধ্যাপক ড. দিলারা চৌধুরী অধ্যাপক ড. শাহেদা ওবায়েদ অধ্যাপক ড. সদরুল আমিন অধ্যাপক ড. হাফিজ জি. এ. সিদ্দিকী অধ্যাপক ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন অধ্যাপক তৌহিদুল আলম অধ্যাপক ডা. বরেন চক্রবর্তী অধ্যাপক ডা. মতিউর রহমান অধ্যাপক ডা. মোঃ শারফুদ্দিন আহমেদ অধ্যাপক ডা. মোঃ হাবিবে মিল্লাত এমপি অধ্যাপক মেহতাব খানম অধ্যাপিকা অপু উকিল এমপি অধ্যাপক ড. হোসনে আরা বেগম আইয়ুব বাচ্চু আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসাইন আনিস এ. খান আনোয়ার উল আলম চৌধুরী পারভেজ আনোয়ার হোসেন মঞ্জু আবদুল বাসেত মজুমদার আবু সাঈদ খান আবুল কাশেম মোঃ শিরিন আবুল কাসেম হায়দার আবুল মাল আব্দুল মুহিত আব্দুল আউয়াল মিন্টু আব্দুল মতিন খসরু এমপি আবদুল মুকতাদির আব্দুল মুয়ীদ চৌধুরী আব্দুস সালাম মুর্শেদী আমির আমির হোসেন আমু এমপি আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী আয়শা খানম আ স ম আবদুর রব আ স ম ফিরোজ আসাদুজ্জামান খান কামাল আসিফ ইব্রাহীম আলী রেজা ইফতেখার আ হ ম মুস্তফা কামাল এমপি ইউসুফ আব্দুল্লাহ হারুন ইনায়েতুর রহিম ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক এমপি ইঞ্জিনিয়ার নুরুল আকতার ইমদাদুল হক মিলন উপধ্যক্ষ মোঃ আব্দুস শহীদ এমপি এ এইচ এম নোমান এ এইছ আসলাম সানি এ কে ফাইয়াজুল হক রাজু এডভোকেট তানবীর সিদ্দিকী এডভোকেট ফজিলাতুন নেসা বাপ্পি এমপি এডভোকেট মোঃ ফজলে রাব্বী এমপি এনাম আলী এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার এমপি এম এ সবুর এম নাছের রহমান এয়ার কমডোর ইসফাক এলাহী চৌধুরী (অব.) এস এম ফজলুল হক ওয়াহিদা বানু কবরী সারোয়ার কাজী ফিরোজ রশীদ কেকা ফেরদৌসী কে. মাহমুদ সাত্তার খন্দকার রুহুল আমিন খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদ খালেদ মুহিউদ্দীন খুশি কবির জুনাইদ আহমেদ পলক জোবেরা লিনু টিপু মুন্সী ড. আবুল বারকাত ড. কাজী কামাল আহমদ ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ ড. তৌফিক এম. সেরাজ ড. বদিউল আলম মজুমদার ড. মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিন ড. সাজ্জাদ জহির ড. সা’দত হুসাইন মেজর জেনারেল সৈয়দ মুহাম্মদ ইব্রাহীম (অব.) বীর প্রতীক মেজর জেনারেল হেলাল মোর্শেদ খান (অব.) বীর বিক্রম মেহের আফরোজ চুমকি মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ মিথিলা ফারজানা মীর নাসির হোসেন মীর মাসরুর জামান মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দীন মীর শওকাত আলী বাদশা মুনিরা খান মুহাম্মদ আজিজ খান মোহাম্মদ নূর আলী মোঃ গোলাম মাওলা রনি এমপি মোঃ জসিম উদ্দিন মসিউর রহমান রাঙ্গা রাশেদ খান মেনন রাশেদা কে চৌধুরী লে. কর্ণেল মোঃ ফারুক খান (অব.) শহীদ উদ্দীন চৌধুরী এ্যানি শাইখ সিরাজ শাওন মাহমুদ শাজাহান খান এমপি শামসুজ্জামান খান শাহীন আনাম শারমীন মুরশিদ শুভ্র দেব শিবলী মোহাম্মদ শিরীন আখতার সরদার সাখাওয়াত হোসেন বকুল স্থপতি মোবাশ্বের হোসেন সাঈদ খোকন সাকিব আল হাসান সাগুফতা ইয়াসমিন এমেলী সাব্বির হাসান নাসির সালমা খান সালাউদ্দিন কাশেম খান সিগমা হুদা সিলভীয়া পারভীন লিনি সুকুমার রঞ্জন ঘোষ সুরাইয়া জান্নাত সুলতানা কামাল সৈয়দ আখতার মাহমুদ সৈয়দ আবুল মকসুদ সৈয়দ মার্গুব মোর্শেদ সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল সৈয়দা রিজওয়ানা হাসান হাসানুল হক ইনু ড. সিনহা এম এ সাঈদ অধ্যাপক ড. সৈয়দ আনোয়ার হোসেন ড. হামিদুল হক ড. হোসেন জিল্লুর রহমান ড. হোসেন মনসুর ড. রেজোয়ান সিদ্দিকী ডা. অরূপরতন চৌধুরী ডা. এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী ডা. জাফরুল্লাহ্ চৌধুরী ডা. জোনাইদ শফিক ডা. মোঃ আব্দুল মতিন ডা. লুৎফর রহমান ডা. সরদার এ নাঈম ডা. সাঈদ আহমেদ সিদ্দিকী ডা. সামন্ত লাল সেন তোফায়েল আহমেদ তালেয়া রেহমান দিলরুবা হায়দার নজরুল ইসলাম খান নজরুল ইসলাম বাবু নবনীতা চৌধুরী নাঈমুর ইসলাম খান নমিতা ঘোষ নাঈমুর রহমান দূর্জয় নাসরীন আওয়াল মিন্টু নুরুল ইসলাম সুজন এমপি নুরুল কবীর নিলোফার চৌধুরী মনি এমপি প্রকোশলী তানভিরুল হক প্রবাল প্রফেসর মেরিনা জাহান ফকির আলমগীর ফরিদ আহমেদ বেগম মতিয়া চৌধুরী বিগ্রেডিয়ার জেনারেল এম সাখাওয়াত হোসেন (অব.) ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ ব্যারিস্টার আমীর-উল ইসলাম ব্যারিস্টার তানিয়া আমীর ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা ব্যারিস্টার সারা হোসেন ভেলরি এ টেইলর মতিউর রহমান চৌধুরী মনজিল মোরসেদ মমতাজ বেগম এমপি মামুন রশীদ মাহফুজ আনাম মাহফুজ উল্লাহ